Green Plants in Red

জীবন ও জীবিকার সাথে জীববৈচিত্র ওতপ্রোতভাবে জড়িত। পরিবেশ ও প্রতিবেশ রক্ষাসহ অর্থনৈতিক উন্নয়নে তথা খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান ও স্বাস্থ্য সেবার মত অনেকগুলো মৌলিক বিষয় প্রায় সম্পূর্ণভাবে জীব বৈচিত্রের উপর নির্ভরশীল। জীববৈচিত্রের অন্যতম উপাদান হিসাবে বৃক্ষরাজির গুরত্ব অপরিসীম ও অনস্বীকার্য। নদী বিধৌত বিস্তৃত পাললিক সমভূমি ও জলাশয়, পাহাড়ী বন, সমতলীয় শালবন, ম্যানগ্রোভ বনাঞ্চল ও গ্রামীন জঙ্গল উদ্ভিদ বৈচিত্রের এক অপূর্ব ভান্ডার। কিন্তু অত্যন্ত দু:খের বিষয় মাত্রাতিরিক্ত আহরণ, বনভূমি ধ্বংস এবং হ্রাস, অসচেতনতা, সংরক্ষণের অপর্যাপ্ত উদ্যোগ ইত্যাদি কারণে বন-জঙ্গলে প্রাকৃতিকভাবে বেড়ে উঠা মূল্যবান গাছপালা হারিয়ে যাচ্ছে এবং ক্রমশ: জীববৈচিত্র ক্ষয়িষ্ণু হয়ে চলেছে। বাংলাদেশের বিরল ও বিলুপ্তপ্রায় গাছপালার কোন পূর্ণাঙ্গ তথ্য বা রিপোর্ট না থাকলেও এতদসংক্রান্ত প্রকাশিত বিভিন্ন প্রকাশনা থেকে যে তথ্য পাওয়া গেছে তা রীতিমত ভীতিজনক। বাংলাদেশ জাতীয় হারবেরিয়াম প্রণীত Red Data Book of Vascular Plants of Bangladesh শীর্ষক দুইটি প্রকাশনায় ২২৬টি উদ্ভিদ প্রজাতিকে বিরল এবং বিলুপ্তির সম্মুখীন বলে উল্লেখ করা হয়েছে। এছাড়াও Asiatic Society of Bangladesh কর্তৃক প্রকাশিত Encyclopedia of Flora and Fauna of Bangladesh শীর্ষক বইয়ে প্রায় ৩৬০টি উদ্ভিদ প্রজাতিকে প্রায় ৮০-১০০ বছর পূর্বে তাদের প্রথম সংগ্রহ করার পর অদ্যবধি ঐসকল প্রজাতির উপস্থিতির কোন তথ্য পাওয়া যাচ্ছে না। তাছাড়া ২০১৩ সালে প্রফেসর ড. মোঃ আতিকুর রহমান কর্তৃক সম্পাদিত Red Data Book of Flowering Plants of Bangladesh- Vol. 1 শীর্ষক পুস্তকে ১৩টি স্বপুস্পক উদ্ভিদ পরিবারের অন্তর্গত ৫২০টি প্রজাতির মধ্যে ১৪৪টি প্রজাতি বিরল বা বিলুপ্তির সম্মুক্ষীন এবং ৬৯টি প্রজাতি ইতিমধ্যে বিলুপ্ত (Extinct)) হয়ে গেছে বলে আশংকা করা হচ্ছে। আরো অনেক এমন বিরল প্রজাতির উদ্ভিদের কথা বিভিন্ন পত্র-পত্রিকা ও প্রকাশনায় উল্লেখ করা হয়েছে। এখানে উল্লেখ্য যে, স্বপুস্পক উদ্ভিদের মধ্যে অনেক উদ্ভিদের কোন উদ্ভিদজ তথ্য (Botanical exploration) বা অর্থনৈতিক গুরুত্ব সম্পর্কে কোন তথ্য অদ্যাবধি লিপিবদ্ধ করা সম্ভব হয় নাই। ক্রমাগত আবাসভূমি ধবংস হওয়ার কারণে এ সকল বিপুল সম্ভাবনাময় উদ্ভিদের অর্থনৈতিক গুরত্ব উদঘাটিত হওয়ার আগেই এদেশ থেকে চিরতরে বিলুপ্ত হয়ে যাওয়ার আশংকা প্রবল হয়ে উঠছে।

দেশের উদ্ভিদ ও জীববৈচিত্র সংরক্ষণের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তির জোরালো এবং সমন্বিত কার্যক্রম গ্রহন করা প্রয়োজন। এ উদ্দেশ্যে Plant Conservation and Research Foundation, দেশের সকল সরকারী ও বেসরকারী Ex situ Conservation Centre (বোটানিক্যাল গার্ডেন, ইকোপার্ক, সাফারীপার্ক, ফিল্ড জিন ব্যাংক ইত্যাদি) এর সমন্বয়ে ‘Bangladesh Botanical Gardens Conservation Network’গড়ে তোলার পদক্ষেপ গ্রহন করেছে।
এই GB Network গড়ে তোলার প্রধান লক্ষ্য হচ্ছে Network এ অংশ গ্রহণকারী প্রতিষ্ঠান/সদস্যদের দক্ষতা বৃদ্ধির (Capacity Building) মাধ্যমে জীববৈচিত্র সংরক্ষণ কার্যক্রম জোরদার করা। এর মূল উদ্দেশ্য হলঃ

  • Network  ভূক্ত সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দের জ্ঞান ও দক্ষতা বৃদ্ধি করার জন্য প্রশিক্ষণ, সেমিনার, ওয়ার্কশপের আয়োজন করা।
  • যুগোপযোগী Software ব্যবহার করে Web-based Electronic Plant Conservation Database তৈরী করা এবং ITF (International Transfer Formate) এর মাধ্যমে তথ্য আদান প্রদান সহজকরন করা।
  • দেশ-বিদেশের বিভিন্ন Conservation Network এবং দাতা সংস্থা সমূহের সাথে অংশীদারিত্বমূলক সম্পর্ক (Partnership and Collaboration) গড়ে তুলে সংরক্ষণ কর্মসূচী বেগবান করা

পরিশেষে আপনার প্রতিষ্ঠানের অধীনে উদ্ভিদ ও জীববৈচিত্র সংরক্ষণ ও গবেষণা কাজে নিয়োজিত বোটানিক্যাল গার্ডেন, ইকোপার্ক, সাফারীপার্ক, ফিল্ড জিন ব্যাংক, সীড ব্যাংক কে  Bangladesh Botanical Gardens Conservation Network (BBGC-Network)এর সদস্য হওয়ার জন্য আমন্ত্রণ জানাচ্ছি। আপনার সহযোগীতা ও পরামর্শ একান্তভাবে কাম্য।